এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখুন আর আপনার সাইটকে নিয়ে আসুন গুগলের প্রথম পেইজে

এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখে ওয়েবসাইট আনুন গুগলের প্রথম পেইজে। বর্তমান প্রেক্ষাপটে ভালো মানের কন্টেন্ট ছাড়া ব্লগিং করার কথা ভাবা ও যায় না , গুগলের প্রত্যেক আপডেটেই কিছু না কিছু বিষয় সংযুক্ত হচ্ছে । ২০১৬-১৭ সালে এসে গুগল যে বিষয়টিকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ত দিচ্ছে তা হচ্ছে আর্টিকেল । ছোট আর্টিকেল বা যেসব আরটিকেল মান সম্পূর্ণ না সার্চইঞ্জিন সেসব আর্টিকেলকে কখনই রেঙ্ক দেয় না ।

ভালো মানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখার গুরুত্ব

আপনার টার্গেট হচ্ছে আপনার ব্লগকে গুগলের প্রথম পৃষ্ঠায় নিয়ে আসা । আপনার ব্লগে যদি মান সম্পূর্ণ ভালোমানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল থাকে তাহলে আপনি গুগলের পিছনে ছুটতে হবে না ,গুগলই আপনার পিছনে ছুটবে ।গুগল আপনাকে অটোমেটিকালি রেঙ্ক দিবে । আর প্রথম পৃষ্ঠায় আসতে পারলেই আপনার ভিজিটরের অভাব হবে না ।ওয়েব স্পেশালিষ্টরা একটা কথা ভালো করেই জানেন যে ” ভিজিটর =টাকা “। কথাটা আসলেই চিরন্তন সত্য । ভিজিটর নাই আপনার সাইটের মূল্য ও নাই । ভিজিটর বেশি হলে বেশি ইনকাম করা যাবে ।গুগলের সর্বশেষ আপডেট অনুযায়ী গুগল ভালো মানের আর্টিকেলকে বেশি গুরুত্ত দিচ্ছে । তাই আপনাকে ভালো মানের এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল অবশ্যই লিখতে হবে । এই জন্য আমার এসইও  টিপস গুলো অনুসরণ করেন আশা করি অনেক ভালো কাজ দিবে

how to write a good article for a blog
how to write a good article for a blog

ভালো মানের ও SEO Friendly article (আর্টিকেল লিখার টিপস)

  • সব সময় আর্টিকেল বড় করতে চেষ্টা করবেন । গুগল চায় তার ইউজারকে এমন পোস্ট দেখাতে যেসব পোস্ট তথ্যবহুল তাই সবসময় তথ্যবহুল পোস্ট লিখুন । আদর্শ হচ্ছে
    ৩০০-১৫০০ শব্দের মধ্যে আর্টিকেল লিখলে ।
  • টাইটেল এ আপনার প্রধান কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করুন । ভিজিটররা সবার আগে টাইটেল দেখে,টাইটেল কে আকর্ষণীয় করতে হবে।যেমনঃ ১। “অনলাইনে আয় করার ২ টি বই
    ডাউনলোড করুন” ২। “আপনি কি আপনার ক্যারিয়ার নিয়ে চিন্তিত?ডাউনলোড করে নিন অনলাইনে আয় সংক্রান্ত অসাধারন একটি ই-বুক” প্রিয় বন্ধুরা তোমরা নিশ্চয় ২ টা
    বাক্যই পড়েছো কিছু কি বুঝতে পারছো ? হ্যা,অবশ্যই বুঝতে পেরেছো ২য় টি শ্রুতি মধুর ,আকর্ষণীয় কিন্তু অন্যটি এত আকর্ষণীয় না ।
  • আর্টিকেলে কী-ওয়ার্ড এর ঘনত্ব ২-৩ % রাখতে চেষ্টা করবেন । অর্থাৎ আপনি যদি ১০০ শব্দ লিখেন তাহলে আপনাকে কী-ওয়ার্ড রাখতে হবে ২ টি বা ৩ টি । অতিরিক্ত কী-
    ওয়ার্ড ব্যবহার করাকে কী-ওয়ার্ড স্টাফিং বল । যাকে সার্চইঙ্গিন ওভার অপ্টিমাইজড বলে। এই ধরনের আর্টিকেলকে সার্চইঙ্গিন পুরাপুরি ইগ্নোর করে । এই ধরণের আর্টিকেল  SEO Friendly article নয়  তাই এই ধরনের আরটিকেল লিখা থেকে বিরত থাকুন ।
  • 118-uk-guest-blogging-siteGuest Posting এর জন্য নিয়ে নিন Uk এর সেরা ১১৮ টি Blog সাইটের লিস্ট
  • h1,h2 হেডিং ব্যবহার করবেন ।যেমনঃ আমরা যখন পত্রিকা পড়ি তখন পত্রিকার সবটা পড়িনা । আমরা জাস্ট শিরোনামটা পড়ি তবে কিছু ক্ষেত্রে ফুল লেখাটা পড়ি ।তাই
    h1,h2,h3,h4,h5,h6 হেডিং অবশ্যই ব্যবহার করবেন । সার্চ ইঙ্গিন এইগুলাকে টাইটেল হিসেবে দেখে।তবে সাবধান!!! h1,h2,h3,h4,h5,h6 কখনো ১ বারের বেশি ২ বার লিখা
    যাবে না,তাহলে গুগল কিন্তু আপনাকে দারুণ একটা গিফট করবে জানেন গিফট টা কি ? ধারুণ একটা পেনাল্টি ।
  • আপনার আর্টিকেল যেসব জায়গায় কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করেছেন সেসব কী-ওয়ার্ডকে বোল্ড,ইতালিক,আন্ডারলাইন করুন ।
  • আপনার লেখার সাইজ ১৫ তে রাখবেন ,যাতে ইউজার ফ্রেন্ডলি হয় । সব সময় সার্চ ইঙ্গিন ফ্রেন্ডলি না করে হিউমেন ফ্রেন্ডলি করবেন তাহলে অটোমেটিক সার্চ ইঙ্গিন ফ্রেন্ডলি হয়ে যাবে ।
  • গুরুত্ত পূর্ণ জায়গায় ইমাজ লাগাবেন এবং অবশই অল্টার ট্যাগ ব্যবহার করবেন alt=”your alt text”
  • কিছু লিখাকে strong,underline,bold করবেন ।
  • পোস্টের শেষে আপনার লেখাটা শেয়ার করতে বলবেন । কারণ সোশ্যাল মিডিয়াতে যেসব পোস্টের শেয়ার বা লাইক বেশি গুগলের কাছে তার গুরুত্ত ও বেশি । তাই সবসময় ভিজিটরদের শেয়ার করার জন্য আহবান জানাবেন ।
  • পরিশেষে আপনি এমন পোস্ট করবেন যেটা মানুষের প্রয়োজনীয় ।
এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল লিখুন আর আপনার সাইটকে নিয়ে আসুন গুগলের প্রথম পেইজে
এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেল এবং গুগোল রেংক টিপস

কী-ওয়ার্ড এর সঠিক ব্যবহার

কী-ওয়ার্ড খুবই গুরুত্তপূর্ণ জিনিস । কী-ওয়ার্ড ছাড়া এস.ই.ও এর কথা ভাবাই যায় না । আমাদেরকে কী-ওয়ার্ড এর সঠিক ব্যবহার জানতে হবে । সবসময় মেইন কী-ওয়ার্ডকে টাইটেলে রাখতে হবে । আরেকটা বিষয় হলো আপনি কি নিয়ে পোস্ট করতেছেন,সে বিষয়টা কিভাবে সার্চ হতে পারে তা চিন্তা করে ৪-৫ টা লাইন মেটা ডেস্ক্রিপ্সান হিসেবে যোগ করে দিন এবং মেটা ডেস্ক্রিপসানে অবশ্যই কী-ওয়ার্ড দিবেন । h1,h2,h3,h4,h5,h6 ট্যাগ গুলোতে অবশ্যই কী-ওয়ার্ড ব্যবহার করবেন । ইমেজের অল্টারে কী-ওয়ার্ড রাখবেন ।
কী-ওয়ার্ড গুলোকে বোল্ড ,আন্ডারলাইন,ইতালিক করবেন।প্রথম প্যারায় ও শেষের প্যারায় কী-ওয়ার্ড রাখবেন

Note : অন্যের লিখা কপি করে নিজের নামে চালিয়ে দিলেন আর আপনি ব্লগার হয়ে গেলেন,আরে ভাই সফলতা পাওয়া এতো সহজ না।

সর্বোপরি আপনাকে নৈতিক হতে হবে তাহলে আপনি আপনার কাংখিত লক্ষ্যে পোঁছাতে পারবেন ।

আজ এই পর্যন্তই সবাই ভালো থাকুন সুস্থ থাকুন । সবার জন্য শুভ কামনা রইলো । আমাদের পোস্ট গুলো দ্বারা যদি নূন্যতম ও উপকৃত হয়ে থাকেন তাহলে ফেসবুক,টুইটার,গুগল প্লাস এ আপনার বন্ধুদের সাথে শেয়ার করতে ভুলবেন না ।

লেখাটি প্রথম প্রকাশিত এখানে

Leave a Reply