কিভাবে ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক ও র‍্যাংক বাড়াবেন সম্পূর্ণ গাইডলাইন

আমাদের অনেকেরই ব্লগ বা ওয়েবসাইট আছে। আমরা সবাই চাই, আমাদের ব্লগে অনেক ট্রাফিক আসুক। ব্লগ এর ট্রাফিক আনতে ও র‍্যাংকিং বাড়াতে আমরা এসইও করে থাকি। আজকে আমি আমার অভিজ্ঞতা থেকে কিছু টিপস দিবো যেই গুলো ব্যবহার করে আপনি আপনার ব্লগের ট্রাফিক ও রাঙ্কিং বাড়াতে পারবেন দ্রুত।প্রথম থেকেই শুরু করা যাক।

কি-ওয়ার্ড নির্বাচনঃ  সার্চ ইঞ্জিন থেকে ভালো ও প্রচুর পরিমানে ট্রাফিক পেতে হলে অবশ্যই আপনাকে ভালো মানের কি-ওয়ার্ড গুলো বেছে নিতে হবে। কি-ওয়ার্ড এর উপরে নির্ভর করেই ডোমেইন নেম থেকে শুরু করে ওয়েব সাইট এর টাইটেল পর্যন্ত নির্বাচন করা হয়। ভালো মানের কি-ওয়ার্ড খুঁজে পেতে আপনি গুগল কি-ওয়ার্ড টুল ব্যবহার করতে পারেন।
কি-ওয়ার্ড নির্বাচন করার সময় খেয়াল রাখবেন যেই বিষয় গুলো :

  • যেই কি-ওয়ার্ড টি লিখে অনেকবার সার্চ করা হচ্ছে সার্চ ইঞ্জিনে,
  • যেই কি-ওয়ার্ড টি নিয়ে কম্পিটিশন কম আছে কিন্তু ভালো পরিমানে সার্চ হচ্ছে প্রতিদিন।

এই সকল বিষয় দেখে শুনে আপনি আপনার পছন্দ মতো কি-ওয়ার্ড গুলো খুঁজে বের করবেন।

কিভাবে ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক ও র‍্যাংক বাড়াবেন সম্পূর্ণ গাইডলাইন

ডোমেইন নেমঃ আপনি যেই কি-ওয়ার্ড গুলো পছন্দ করেছেন সেই কি-ওয়ার্ড গুলো এর উপরে এই বার আপনাকে একটা ডোমেইন নেম কিনতে হবে। বিষয় টি পরিষ্কার করে বলি : মনে করেন আপনি এই কি-ওয়ার্ড পছন্দ করেছেন, SEO Tutorial তাহলে আপনার ডোমেইন নেম এর ভিতরে SEO শব্দটি ব্যবহার করুন, আরও ভালো হবে SEO Tutorial শব্দটি ব্যবহার করলে। আপনার কি-ওয়ার্ড আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের ডোমেইন নেমের ভিতরে থাকলে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট সার্চ ইঞ্জিন এর প্রথম দিকে আনতে সহজ হবে। তাই সর্বদা চেষ্টা করুন ওয়েবসাইট বা ব্লগের মেইন কি-ওয়ার্ড ওয়েবসাইট বা ব্লগের ডোমেইন নেমের ভিতরে ব্যবহার করতে।

ব্লগ করলেই ওয়ার্ডপ্রেস ছাড়া কোন কথা হবে নাহ : আপনি যদি ব্লগিং করার চিন্তা ভাবনা করেন তাহলে ওয়ার্ডপ্রেস ( সি.এম.এস ) ব্যবহার করাই উত্তম। ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে অনেক ভালো মানের এসইও ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট করা যায়। ওয়ার্ডপ্রেস অনেক থিম ও প্লাগিন রয়েছে যে গুলো ব্যবহার করে আপনি অসাধারণ ভাবে আপনার ব্লগটি সাজিয়ে নিতে পারেন। সামান্য কোডিং জ্ঞান আছে বা নেই তারাও ওয়ার্ডপ্রেস দিয়ে ডাইনামাইক ওয়েবসাইট করতে পারবে। টেকটিউন্স ওয়ার্ডপ্রেস প্লাটফর্মে তৈরি হয়েছে।ওয়ার্ডপ্রেস নিয়ে অন্য দিন আলোচনা করবো।

আপনার ওয়েবসাইট এসইও ফ্রেন্ডলি করুন : ওয়েব সাইট যতো সুন্দর হোক নাহ কেন, এসইও ফ্রেন্ডলি না হলে আপনার পক্ষে অনেক কষ্ট হয়ে যাবে সেই ওয়েবসাইট এর রেঙ্ক বাড়ানো। ওয়েবসাইট এসইও ফ্রেন্ডলি যে ভাবে করবেন:

  • টাইটেল যেভাবে নির্বাচন করবেনঃ
    আপনি যেই সকল কি-ওয়ার্ড নির্বাচন করেছিলেন সেই সব কি-ওয়ার্ড এর উপরে নির্ভর করে আপনি আপনার ওয়েব সাইট এর টাইটেল নির্বাচন করবেন। আপনার ওয়েবসাইট এর মেইন কি-ওয়ার্ড আপনার ওয়েবসাইট এর টাইটেলে ব্যবহার করুন। টাইটেল অনেক বেশি বড় করা উচিত না। ওয়েবসাইট এর ক্যাটাগরি এর উপরে ওয়েবসাইট এর টাইটেল দিবেন
  • হোম পেজে কি ওয়ার্ডঃ
    আপনার ওয়েবসাইট এর হোম পেজে কোন এক টেক্সট এর লিঙ্কে আপনার ওয়েবসাইট এর কি-ওয়ার্ড গুলো ব্যবহার করুন। সাধারন ভাবে ফুটারে ব্যবহার করলে ভালো হয়। ফুটারে ক্রেডিট লিঙ্ক গুলোতে আপনার ওয়েবসাইট এর মেইন কি-ওয়ার্ড গুলো ব্যবহার করুন।
  • ওয়েব সাইট সম্পর্কেঃ
    বিভিন্ন সময় অন-পেজ এসইও করার সময় Description লিখতে হয় । আপনার ওয়েব সাইট সম্পর্কে ১৫০ ওয়ার্ডস এর মধ্যে আপনার ওয়েবসাইট এর কি-ওয়ার্ড গুলো একাধিকবার ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে  লিখুন।
  • সোশ্যাল বুকমার্ক করার ব্যবস্থাঃ
    সোশ্যাল নেটওয়ার্ক গুলো এখন ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক বাড়ানোর ক্ষেত্রে ভালো অবদান রাখছে। সোশ্যাল নেটওয়ার্ক গুলো যথাযথ ব্যবহার করে আপনার আমাদের ওয়েবসাইট এর জন্য অনেক ট্রাফিক পেতে পারি।
    সোশ্যাল বুকমার্ক এর আইকন গুলো ওয়েবসাইট এর যেকোন স্থানে ব্যবহার করতে এই টুল ব্যবহার করতে পারেন। এটা অল্প জায়গা নেয় লোডিং সময় বাড়ায় না।
  • এসইও ফ্রেন্ডলি আর্টিকেলঃ
    আর্টিকেল প্রতিটি ব্লগ এর জীবন। যতো ভালো মানের আর্টিকেল আপনার ব্লগে থাকবে ততো দ্রুত আপনি আপনার ব্লগের র‍্যাংক ও ট্রাফিক বাড়াতে পারবেন। বড় আর্টিকেল লিখার চেষ্টা করুন। বানান ভুল ও এই ধরনের ভুল যেন নাহ হয় সেই দিকে লক্ষ রাখুন। মানুষ মাত্রই ভুল তাই আর্টিকেল পাবলিশ করার আগে ফ্রী এই টুল  ব্যবহার করে দেখে নিন আপনার আরিকেলে কোথায় কোথায় গ্রামার ভুল হয়েছে। গ্রামার চেক করা শেষ হলে এই বার এই টুল  ব্যবহার করে দেখে নিন আপনার আর্টিকেল কতো টুকু ইউনিক। ভুল-ভাল আর্টিকেল পাবলিশ করে কোন লাভ হবে নাহ আপনার ।
  • ইমেজ গুলো এসইও ফ্রেন্ডলি করুনঃ
    আপনার ওয়েবসাইটে বা ব্লগে যখন কোন ইমেজ আপলোড করবেন তখন, সেই ইমেজ এর নাম, ইমেজ সম্পর্কে ও ALT Tag ব্যবহার করুন ইমেজ উপর নির্ভর করে। ইমেজ সার্চ থেকে আপনি ভালো পরিমানে ট্রাফিক পেতে পারেন। তাই এই ধরনের ছোট ছোট কাজ গুলোকে ভালো কাজে ব্যবহার করুন। চেষ্টা করুন সব ইমেজ গুলো নিজে তৈরি করতে।
  • সাইট ম্যাপ
    আপনার ওয়েবসাইট বা ব্লগের জন্য একটি সাইট ম্যাপ তৈরি করুন ও আপনার ওয়েব সাইট এর মেইন ফাইল গুলো যেখানে আছে সেখানে আপলোড করুন। এর জন্য আপনি গুগল এক্সএমএল সাইট ম্যাপ ব্যবহার করতে পারেন।
  • ডিজাইন যেমন করবেনঃ
    আপনার ওয়েবসাইট এর ডিজাইন সাধারন হবে যেন, কোন নতুন ভিজিটর ও বোট গুলো আপনার ওয়েবসাইটের কোথায় কি আছে তা সহজেই বুঝতে পারে। আপনার ওয়েবসাইট লোড নিবে দ্রুত। উলটাপাল্টা স্লাইডার বা ভারি কোন কিছু হোম পেজে ব্যবহার করা উচিত নাহ। যেই সকল ব্লগ লোড নিতে দেরি হয় সেই সব ব্লগ কেউ পছন্দ করে নাহ ও স্লো কোন ওয়েবসাইট কে গুগল সহজে রেঙ্ক দিতে চায় নাহ।

এই গুলো মাথায় রেখে করলেই একটি এসইও ফ্রেন্ডলি ওয়েবসাইট বা ব্লগ করা যায়। বিদ্রঃ কোন কিছু লিখতে ভুলে গেলে মনে করিয়ে দিবেন আপডেট করে দিবো।

কিভাবে ওয়েবসাইট এর ট্রাফিক ও র‍্যাংক বাড়াবেন সম্পূর্ণ গাইডলাইন

ব্লগ কমেন্ট করুনঃ ভালো ব্যাক লিঙ্ক পেতে হলে ভালো মানের রিলেভেন্ত ব্লগ গুলোতে কমেন্ট করুন। ৫ টি হাই পিআর ব্লগে  কমেন্ট আপনাকে যেই ৫০টি ব্যাক লিঙ্ক এর কাজ করে দিবে ! আপনি প্রথমে খুঁজে বের করুন আপনার সাথে মিল রেখে যেই ব্লগ গুলো আছে সেই ব্লগ গুলোর ঠিকানা তারপরে এই টুল ব্যবহার করে ঐ ব্লগের এক্সটারনাল ব্যাক লিঙ্ক গুলো থেকে যেই সব সব ব্যাক লিঙ্ক ব্লগ কমেন্ট এর মাধ্যমে হয়েছে সেই সব লিঙ্কে ওপেন করে আপনি আপনার ব্লগ/ওয়েবসাইট এর জন্য কমেন্ট করুন। আর ঐ ব্লগ গুলো নিয়মিত ফলো করে নতুন নতুন আর্টিকেলে কমেন্ট করুন। প্রিতিদিন টার্গেট করুন ১৫ টি হাই পিআর ব্লগ থেকে কমেন্ট এপ্প্রুভ করানোর। প্রতিদিন ১৫ টি রেলেভেন্ত কমেন্ট যথেষ্ট ।

সোশ্যাল বুকমার্কঃ সোশ্যাল বুকমার্ক করুন নিয়মিত । প্রতিদিন ২৫টি নতুন নতুন হাই পিআর সোশ্যাল বুকমার্কিং সাইটে আপনার সাইট সাবমিট করুন। আর এমন ৩০টি সোশ্যাল বুকমার্ক সাইট পছন্দ করুন যাদের পেজ রেঙ্ক ভালো, কমপক্ষে পেজ রেঙ্ক ৫, এই সাইট গুলোতে আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর নতুন নতুন আর্টিকেল গুলো সাবমিট করুন নিয়মিত।

ফোরাম লিঙ্কঃ গুগল ফোরাম লিঙ্ক অনেক পছন্দ করে এমনটা পড়েছিলাম এই আর্টিকেলে কিন্তু আমি সঠিক জানি নাহ। কিন্তু ফোরাম থেকে আপনি ভালো মানের ডুফলো ব্যাক লিঙ্ক পেতে পারেন। যা আপনার ব্লগ বা ওয়েবসাইট এর রাঙ্ক বাড়াতে অনেক সাহায্য করবে। অনেক গুলো ফোরাম সাইট এর লিঙ্ক এর জন্য আমার এই পোস্ট দেখতে পারেন ।

গেস্ট ব্লগিং: গেস্ট ব্লগিং করে অনেক ট্রাফিক করা সম্ভব। আপনি কিছু ব্লগ খুঁজে বের করুন যেই ব্লগ গুলোতে গেস্ট ব্লগ করতে দেই ও আপনার ব্লগের সাথে ঐ ব্লগের মিল রয়েছে। প্রতিদিন ১টি গেস্ট ব্লগিং করে আপনি অনেক ট্রাফিক পেতে পারেন। যেইসব ব্লগে অনেক অনেক ট্রাফিক আছে ও ভালো পেজ রেঙ্ক আছে সেই সব ব্লগে গেস্ট ব্লগিং করুন।
আপনার আর্টিকেল আপনি নিজে লিখবেন। গেস্ট ব্লগিং করে ২টা অথবা ৩টা ব্যাক লিঙ্ক পাওয়া সম্ভব তার সাথে প্রচুর ট্রাফিকও।

এই টিপস গুলো নিয়মিতি ফলো করলেই আপনি সফল হতে পারেন আমার মতে। কোথায় কোন ভুল হলে ক্ষমাশূন্য চোখে দেখবেন ও কমেন্টের মাধ্যমে ভুল ধরিয়ে দিবেন।

Leave a Reply