গুগল এডসেন্স এপ্রুভাল পাবার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস – আপনিও পাবেন এডসেন্স!

আজ আমি আপনাদের গুগল এডসেন্স অনুমোদন পাবার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস দিব।

গুগল এডসেন্স বিশ্বের অনেক জনপ্রিয় একটা এড কম্পানি। এরা পাবলিশারদের ভাল পরিমান টাকা দেয়। একবার গুগল এডসেন্স এর এপ্রুভ হলে অনেক আপনি ধনী হতে পারেন।

আমাদের অনেকের কাছেই মনে হয় গুগল এডসেন্স সোনার হরিন। এটা পাওয়া খুব কঠিন। কি আমি বলি এটা মোটেই কঠিন না। আপনি গুগল এডসেন্স এর নিয়ম গুলা সঠিকভাবে মানলে অবশ্যই এপ্রুভ হবে।আপনাকে সঠিক পদ্ধতিতে ধাপে ধাপে আগাতে হবে।
আমি কিছু টিপস দিতেছি যেগুলা পালন করলে অবশ্যই পাবেন গুগল এডসেন্স।
গুগল এডসেন্স এপ্রুভাল পাবার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস - আপনিও পাবেন এডসেন্স!

ইংরেজি ভাষার সাইট

আপনি যদি মনে করেন আপনার বাংলা ব্লগ বা বাংলা সাইট থেকে এডসেন্স নিবেন তাহলে ভুল ভাবছেন। গুগল কখনই বাংলা সাইটকে অনুমোদন দিবে না। তবে আপনি এটা করতে পারেন, প্রথমে সাইটে ইংরেজি কন্টেন্ট রেখে এডসেন্স পাবার পর বাংলা কন্টেন্ট দিতে পারেন।

টপ লেভেল ডোমেইন

আপনি কখনই সাবডোমেইন বা ফ্রি ডোমেইন যেমনঃ .Tk .Ml ইত্যাদি থেকে এডসেন্স পাবেন না। ভাল মানের ডোমেইন সিলেক্ট করতে হবে। .com .org .net হলে ভাল হয়। আর অনেক আগে গুগল blogger এর সাবব ডোমেইন হলেই এডসেন্স দিয়ে দিত। কিন্তু এখন আর সেই দিন নেই। ব্লগার বা ওয়াডপ্রেস সাইয় যে সিএমএস এরই হোক না কেনো ভাল ডোমেইন সিলেক্ট করেন।

গুগলের কাছে নিজেকে বিশ্বস্ত করে তুলুন

গুগলের কাছে আপনাকে একজন বিশ্বাসযোগ্য ব্যাক্তি হতে হবে। এর জন্য আপনি আপনার গুগল একাউন্ট মোবাইল ভেরিফাই করে নিন। আপনার গুগল প্লাস একাউন্ট এর প্রোফাইল ১০০% কমপ্লিট করার চেষ্টা করুন। এবং অবশ্যই যেন আপনার বয়স প্রোফাইলে ১৮+ থাকে।এগুলা করলে গুগল আপনাকে এডসেন্স দিতে ভরশা পাবে।

বেশি কনটেন্ট লিখে তারপর আবেদন করুন

অনেকেই কম কনটেন্ট দিয়ে এডসেন্স আবেদন করে।চিন্তা করে আগে এডসেন্স পাইয়া নেই তারপর কনটেন্ট দিমু। এটা একটা সিরিয়াস ভুল। আগে কম করে হলেও ২০-২৫ টা ভাল কনটেন্ট দিয়ে গুগল এডসেন্স এ আবেদন করবেন।তাহলে এডসেন্স পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে।

অন্যান্য এড নেটওয়ার্ক কোম্পানির এড লুকিয়ে ফেলুন

গুগল এডসেন্স এ আবেদন করার পর গুগল যদি দেখে আপনি অন্যান্য কোম্পানির এড ব্যবহার করতেছেন তাহলে আপনাকে তারা আপনাকে তারা এডসেন্স দিবে না। তাই অন্য কোন কোম্পানির এড থেকে বিরত থাকাই ভাল। আর সেটা না পারলে এডসেন্স আবেদন করার সাথে সাথে অন্য এড সরিয়ে দিন। এডসেন্স পাওয়ার পর আবার আগের এড বসিয়ে দিতে পারেন।

ইউনিক ভিসিটর আনুন

আপনার সাইটে যদি উনিক ভিসিটর বেসি থাকে তাহলে আপনার এডসেন্স পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেড়ে যাবে। তাই আপনার সাইটে উনিক ভিসিটর আনার চেষ্টা করুন। এসইও (SEO) করে অনেক উনিক ভিসিটর আনা যায়।

গুগল এডসেন্স এপ্রুভাল পাবার কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস - আপনিও পাবেন এডসেন্স!

সাইট বা ডোমেইন এর বয়স

গুগল এডসেন্স এপ্রুভ করাতে হলে আপনার সাইটের বয়স অবশ্যই ৩ বা ৪ মাসের বেশি হতে হবে। ১-২ মাস হলেও কাজ করা যায়। তা না হলে গুগল আপনাকে এডসেন্স দিবে না।

আপনার সাইটে কিছু গুরুত্বপূর্ণ পেইজ বানান

গুগল এডসেন্স এর জন্য এই পেইজ অনেক গুরুত্বপূর্ণ। দ্রুত গুগল একাউন্ট পেতে হলে আপনাকে অবশ্যই Conact Us, About Us, Privacy and Policy পেইজ তৈরি করতে হবে।এগুলা না থাকলে ভিসিটর কিভাবে আপনার সাথে কন্টাক্ট করবে।

কনটেন্ট কপি থেকে বিরত থাকুন

গুগল এডসেন্স আর আগের মত নেই। তারা যদি দেখে আপনার সাইটের কনটেন্ট কপি করা তাহলে বাশ। এডসেন্স পাওয়ার আশা ছেরে দেন। তাই ভাল ভাল কন্টেন্ট দিন সাইটে। কপি পেস্ট থেক সংযত থাকুন।

আরাও অন্যান্য কিছু টিপস

  • আপনার সাইট গুগলে ইনডেক্স করুন।
  • সাইটের এসইও করুন।
  • সাইট পপুলার করে ভিসিটর বাড়ান।
  • আপনার সাইট যদি কোন ব্যাবসা বিষয়ক হয় তাহলে খুব ভাল হয়।
  • ইউজার ফ্রেন্ডলি সাইট বানান।
  • পেইড ট্রাফিক নেয়া থেকে বিরত থাকুন।

আপনি যদি উপরের টিপস গুলা মেনে চলতে পারেন তাহলে আপনি অবশ্যই গুগল এডসেন্স পাবেন

Leave a Reply