নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ – নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক ব্যবহার

  • পুরো সাইটের মধ্যে যেখানে পারা যায় তার সব জায়গায় অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক ব্যবহার করে সাইটকে স্প্যামিভাব দেয়া
  • নাকি যৌক্তিক জায়গায় অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক ব্যবহার বুদ্ধিমানের কাজ?

নিশ্চয়ই দ্বিতীয়টা।

যে সাইটের মধ্যে শুধু অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক ভর্তি সেই সাইটকে ভিজিটর খুব কমই বিশ্বাস করবে। এছাড়া অ্যামাজন থেকে কখনো সাইট রিভিউ করলেও ঝামেলা করার সমূহ সম্ভাবনা থাকে, আর গুগলতো থিন কন্টেন্ট ইস্যুতে সাইডে নিয়ে পেনাল্টি দিয়ে দিবে।

আমি জানি, সবারই মূল উদ্দেশ্য থাকে, কিভাবে ভিজিটরকে প্রোডাক্ট পেইজে পাঠিয়ে দেয়া যায়। এর জন্যে হাজার হাজার লিঙ্ক ব্যবহারের প্রয়োজনীয়তা নেই।

ঠিক যেখানে যেখানে প্রয়োজন, সেখানে ব্যবহার করলেই জনগণ অ্যামাজনের প্রোডাক্ট পেইজে যাবে এবং প্রোডাক্ট কিনবে।

তো এই যৌক্তিক জায়গাগুলো যেন সবাই জানতে পারেন এবং অপ্রয়োজনীয় লিঙ্ক ব্যবহার এড়িয়ে চলতে পারেন সেটার জন্যে এই ছোট্ট পোস্ট।

আর এক্ষেত্রে আমি একাধিক পাবলিক নিশ সাইটের সহায়তা নিয়েছি, যেগুলো সম্পর্কে কম বেশি অনেকেই জানে।

আমি চেষ্টা করবো খুব সহজ-সাবলীলভাবে বিষয়টা আপনাদের কাছে তুলে ধরার।

এখানে উল্লেখিত সবগুলো জায়গাতেই লিঙ্ক ব্যবহার করতে হবে বিষয়টা এমন না। আমি সম্ভাব্য জায়গাগুলো দেখাবো। আপনার যেখানে প্রয়োজন মনে হবে, সেখানে ব্যবহার করবেন।

১) অ্যাবোভ দ্য ফোল্ড

আপনার ওয়েবসাইটে ভিজিটর ঢুকলে প্রথমেই যে অংশটুকু সে দেখতে পায় কোনরকম স্ক্রল করা ছাড়া, সেটিই হচ্ছে অ্যাবোভ দ্য ফোল্ড অংশ। এই অংশে লিঙ্ক থাকলে সেটা প্রায় সবারই চোখে পড়বে। তবে, আমি পার্সোনালি খুব কম ক্ষেত্রেই অ্যাবোভ দ্য ফোল্ড অংশে লিঙ্ক ব্যবহার করেছি। এটা পার্সোনাল প্রেফারেন্স, আপনি চাইলে সব পোস্টেই ব্যবহার করতে পারেন।

নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ - নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

উপরের ছবিটিতে তীর চিহ্ন দিয়ে এই অংশে ব্যবহার করা অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক দেখিয়ে দিয়েছি।

এক্ষেত্রে আর্টিকেলের প্রথম প্যারাতে কোন প্রোডাক্টটিকে আপনি বেস্ট হিসেবে সিলেক্ট করেছেন সেটি অন্তত একবার উল্লেখ করে প্রোডাক্টের নামের মধ্যে লিঙ্ক করে দিতে হবে।

এর জন্যে রাইটারকে প্রথম অংশে বেস্ট প্রোডাক্টটার নাম একবার লিখতে বলতে হবে। কিন্তু ইংরেজি দূর্বলতার কারণে বা কমিউনিকেশন স্কিলের অভাবে অনেকে এটা রাইটারকে সঠিক ভাবে বুঝাতে না পারলে বা রাইটার বিষয়টা না বুঝলে আর্টিকেলের শুরুটা একেবারে যাচ্ছেতাই হয়ে যাবে।

যদি আপনি নিশ্চিতভাবে বোঝাতে সক্ষম হবেন বলে মনে করেন তবেই কেবল এটা করবেন, অন্যথায় না করাটা ভালো।

২) টেবিল

টেবিল/কম্প্যারিজন টেবিল যে নামেই বলেন, এখানে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক ব্যবহার করলে তুলনামূলক ক্লিক বেশি পাওয়া যায়। একসময় আমার একটা ভুল ধারণা ছিল ডিটেইলস রিভিউ বাদ দিয়ে কেউ হয়তো শুধু টেবিল দেখে এতো দ্রুত ডিসিশন নিবেনা। পরে বুঝতে পারি, আমার ধারণাটা ভুল। একদম সাদামাটা টেবিল ব্যবহার করলেও ক্লিক থ্রু রেট বেশি পাওয়া যায়। তাই, এখন কম-বেশি টেবিল ব্যহার করছি। সময়-সুযোগ থাকলে বিস্তারিত করে টেবিল তৈরি করতে পারেন। নিচে মোটামোটি তথ্যসমৃদ্ধ একটি সিম্পল টেবিল এর ছবি আছে।

নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ - নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

এর চাইতেও বিস্তারিত করা যায়, তবে তাতে প্যারালাইসিস বায় অ্যানালাইসিস হয়ে যাবে। হয়তো ভিজিটর আরও কনফিউজড হয়ে যাবে। তাই সীমিত রাখা ভালো। এক্ষেত্রে ডলার সাইন দিয়ে আনুমাণিক দামের ডিজিট বোঝাচ্ছে, যেটি না ব্যবহার করাই বেটার। আর এভাবে টেবিল তৈরী করতে চাইলে নিচের ছবির মতো একদম সিম্পল করেও করতে পারেন।

নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ - নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

৩) প্রোডাক্টের নামের সাবহেডিং এবং ছবি

প্রোডাক্টের নামের সাবহেডিং এ লিঙ্ক অ্যাড করতে পারেন। ২০১১-১২ সালে কম বেশি সব ধরণের অ্যাফিলিয়েট সাইটেই সাবহেডিং এ লিঙ্ক দেখতে পেতাম। পরে যেন, হঠাত করেই এই প্র্যাকটিস টা কমে আসে।বর্তমানে অধিকাংশ সাইটেই আর নামের সাবহেডিং এ লিঙ্ক ব্যবহার করেনা। আমি নিজেও করিনা। তবে চাইলেই আপনি ব্যবহার করতে পারেন।

নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ - নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

এছাড়া প্রোডাক্টের ছবিতে অবশ্যই লিঙ্ক ব্যবহার করা উচিৎ। জনগণ অনেকক্ষেত্রেই প্রোডাক্টের ছবিতে ক্লিক করে সেটাকে আরও বড় করে দেখতে চায়। সেক্ষেত্রে এখানে লিঙ্ক ব্যবহার করাটা যৌক্তিক।

৪) প্রোডাক্টের নাম

আর্টিকেলের মধ্যে প্রোডাক্টের নাম কয়েকবার থাকতে পারে, সেক্ষেত্রে নামটা যেবার প্রথম এসেছে সেখানে একটা অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক দিয়ে দিতে পারেন। তবে প্রোডাক্ট নামের সাবহেডিং এ লিঙ্ক ব্যবহার করলে এখানে ব্যবহার না করলেও হবে। আমি একাধিক সাইটে দেখেছি, যেখানে যেখানে প্রোডাক্টের নাম ব্যবহার হয়েছে, তার বেশিরভাগ জায়গাতেই লিঙ্ক বসিয়ে দিয়েছে। এমনটা করার দরকার নেই।

৫) কল টু অ্যাকশন (বাটন/টেক্সট)

নিশ সাইট ডেভেলপমেন্ট পর্ব ০৬ - নিশ সাইটে অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক কোথায় কোথায় ব্যবহার করবেন

প্রোডাক্টের বর্ণনা শেষ করার পর একটা কল টু অ্যাকশন বাটন/টেক্সট অবশ্যই ব্যবহার করা উচিৎ। আমি বিষয়টা নিয়ে কনফিউজড ছিলাম দীর্ঘদিন যে আসলে বাটন দিলে ক্লিক বেশি পড়ে না টেক্সট দিলে। আমি আগে যেমন কনফিউজড ছিলাম, এখনও তেমনই আছি :p (কেউ পারলে উদ্ধার করেন)

আমি সাইটে টেক্সট দিয়েছি, বাটন দিয়েছি, টেস্ট করেছি। ফাইনাল রেজাল্ট কনফিউজিং। একেক নিশের সাইটে একেকটা ভালো করে। তাই পরামর্শ হচ্ছে যখন জনগণ সাইটে আসা শুরু করবে টেক্সট এবং বাটনের মধ্যে নিজেই টেস্ট করতে পারেন। যেটায় ক্লিক বেশি পাবেন সেটাই রেখে দিবেন।

শেষ কথা

আপাতত এই স্থানব্যতীত আর কোথাও অ্যাফিলিয়েট লিঙ্ক বসানোর সুযোগ/প্রয়োজন আছে বলে মনে হয়না। আপনার নিশ সাইটের জন্য কোন কোন পজিশনে লিঙ্ক ব্যবহার করলে বেশি কাজে আসছে সেটা টেস্ট করুন। খেলা যেহেতু হবেই, তো খেলা হোক। নিজেই একটু খেলা করুন অ্যাফিলিয়েট নিশ সাইটের লিঙ্ক নিয়ে, তাহলে বুঝে যাবেন আপনার কোথায় কিভাবে ব্যবহার করা উচিৎ।

Leave a Reply