পিন্টারেস্ট থেকে কীভাবে আপনার ব্লগে ট্রাফিক বাড়াবেন? সাথে আরও কিছু টিপস

সোশাল নেটওয়ার্ক গুলোর মধ্যে প্রথম স্থানে রয়েছে ফেইসবুক। জনপ্রিয়তার দিক দিয়ে এর ধারে কাছেও আর কেউ পৌঁছুতে পারছে না, পারবে বলেও মনে হয় না। তবে দ্বিতীয় স্থানটি দখল করার জন্যে মারাত্মক প্রতিযোগিতা চলছে গুগল প্লাস, টুইটার, পিন্টারেস্ট এর মধ্যে।

পিন্টারেস্টের জনপ্রিয়তা ও ব্যবহারকারী দিন দিন বেড়েই চলেছে। পুরো সাইটকেই একটি ই-কমার্স সাইট হিসেবেও ধরা যেতে পারে। কারণ বিভিন্ন ব্র্যান্ডগুলো যেমনি তাদের পিন্টারেস্ট অ্যাকাউন্ট থেকে বিভিন্ন পণ্যের ছবি প্রকাশ করতে পারছে, তেমনি গ্রাহকরাও তাদের পছন্দের পণ্যগুলোকে “রিপিন” করে রাখছেন। আর এ কথা বলার অপেক্ষা রাখে না যে, পিন্টারেস্ট ঠিক তাদের কাছেই সবচেয়ে বেশি জনপ্রিয় যাদের “শপিং-এ কোনো জুড়ি নেই!”

সুতরাং পিন্টারেস্টের মাধ্যমে আপনি আপনার পন্যের প্রচার করে ব্যাবসার উন্নতি করতে পারেন খুব সহজভাবে।

এর আগে ব্যবসার প্রচারের কাজে আরেক জনপ্রিয় সোশ্যাল মিডিয়া সাইট, লিংকডিনের উপর একটি পোস্ট করেছিলাম। যারা সেটি মিস করেছেন, তাদের জন্য লিংক দিচ্ছি। ঘুরে আসতে পারেন।

এক নজরে বিস্তারিত

লিঙ্কেডিনে আপনার প্রোফাইলটা ঠিক আছে তো? লিঙ্কেডিন বাংলা টিউটোরিয়াল

পিন্টারেস্ট থেকে কীভাবে আপনার ব্লগে ট্রাফিক বাড়াবেন? সাথে আরও কিছু টিপস

পিন্টারেস্ট থেকে ভিসিটর আনতে হলে যা যা করতে হবে, তার বর্ননা দেয়া হল ধারাবাহিকভাবে,

পিন্টারেস্টে আপনার একাউন্ট আছে তো?

পিন্টারেস্টে আপনার একাউন্ট আছে তো? যদি না থেকে থাকে আজ, এক্ষুনি আপনার অথবা আপনার ব্লগের নামানুসারে একটি একাউন্ট খুলে ফেলুন।

‘About’ সেকশনে আপানার সম্পর্কে এবং আপনার ব্লগ এর ব্যাপারে সংক্ষিপ্ত বর্ননা লিখে দিন যাতে করে অন্যরা আপনার সম্পর্কে ধারনা নিয়ে আপনার ব্লগ ভিজিট করতে আসে। তবে স্পাম করবেন না, লেখা গুলো যেন আপনার ব্যাক্তিত্বের পরিচয় বহন করে।

তারপর সেই প্রোফাইল লিঙ্ক অবশ্যই আপনার অয়েব সাইট বা ব্লগে এ লিঙ্কড করে দেবেন।

কীভাবে পিন্টারেস্ট লিঙ্কটি আপানার ব্লগের সাথে কানেক্ট করবেন

Step 1: লগ ইন করুন

Step 2: “Settings” অপশনে ক্লিক করুন

পিন্টারেস্ট থেকে কীভাবে আপনার ব্লগে ট্রাফিক বাড়াবেন? সাথে আরও কিছু টিপস

Step 3: এর পর Account Basics আসবে, সেখান থেক ক্রল ডাউন করে ‘web site’ এর ঘরে আপনার ওয়েব সাইটের লিঙ্ক টি বসিয়ে দিয়ে সেইভ করুন।

Step 4: এবার আপনার ওয়েবসাইটের লিঙ্ক টি ভেরিফাই করে নিন। ভেরিফাইড হলে আপানার প্রোফাইলে শো করা লিংকের পাশে tick মার্ক শো করবে। আর এতে করে আপানার সাইটে দ্বিগুন ভিসিটর যাবে, কারন ‘tick’ মার্ক থাকা মানেই আপনার এবং আপনার ব্লগের প্রতি ভিজিটর দের বিশ্বস্ততার সৃষ্টি হওা, যা আপানার ব্যবসার মূলধন বলা যায়।

ভেরিফাইড ওয়েবসাইট হলে আর একটি সুবিধা আপনি পাবেন, তা হল Pinterest এর free analytics tool টি আপান্র জন্যে আনলক করে দেয়া হবে। এই free analytics tool এর মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন প্রতিদিন কী পরিমান ভিজিটর আপনার সাইট ভিজিট করছে, বা কিভাবে আপনি আর ভিজিটর বাড়াতে পারবেন।

Step 5: আপনার প্রোফাইল পিক এর নিচে একটি গ্লোব আইকন দেখতে পাবেন, এই আইকন্টি এবার আপান্র ব্লগ বা ওয়েব সাইটের লিঙ্ক টি এড করে দিন।

পিন্টারেস্ট থেকে কীভাবে আপনার ব্লগে ট্রাফিক বাড়াবেন? সাথে আরও কিছু টিপস

ওয়েবসাইটে পিন্টারেস্টের ফলো বাটন অবশ্যই এড করতে হবেঃ

পিন্টারেস্ট থেকে কীভাবে আপনার ব্লগে ট্রাফিক বাড়াবেন? সাথে আরও কিছু টিপস

আপনার ওয়েবসাইটে পিন্টারেস্টের ফলো বাটন

এনগেইজড থাকুনঃ

সোশাল মার্কেটার হিসেবে অন্যান্য সাইট গুলোর মত পিন্টারেস্টের সাথেও আপনাকে Engaged থাকতে হবে নিয়মিত। আপনি যত আপানার বোর্ডের ফলোয়ার দের সাথে কানেক্টেড থাকতে পারবেন, তাঁরা ততই আপনার সাথে যুক্ত থাকবে।

এর জন্যে কী করতে হবে?

আসল, প্রাসঙ্গিক এবং উন্নত মানের কন্টেন্ট পিন করুন,

ফলোয়ারদের ফি্ডসে আপানার পিন শো করানোর জন্য রেগুলার পিন করুন, তবে অবশ্যই ধারাবাহিকতা বজায় রেখে।

যারা আপনাকে ফলো করবে, আপনিও অবশ্যই তাদের কে ফলো করবেন,

ভালো ও উন্নতমানের পিন সম্পর্কে ধারনা পাবার জন্যে ফলোয়ার বা অন্যদের বোর্ড গুলো চেক করুন নিয়মিত।

ফলোয়ারদের পিন গুলো রিপিন করুন, লাইক দিন এবং কমেন্ট করুন। এতে করে ফলোয়ারদের সাথে আপান্র সুসম্পর্ক সৃষ্টি হবে।

আপনার ব্লগে “Pin it” বাটন যুক্ত করুনঃ

আপনার ব্লগের আর্টিকেল বা ইমেজে আবশ্যই “Pin it” বাটনটি যুক্ত করবেন, তাহলে ভিসিটররা তাদের পছন্দ হওয়া পোস্ট গুলো পিন করে নিতে পারবে।

ফলোয়ারদের খুশি রাখুনঃ

শুধু ফলোয়ার বাড়ালেই হবে না, তাদের কে ধরে রাখতে হবে, খুশি রাখতে হবে। তা নাহলে হয়তোবা এসেও বিরক্ত হয়ে আপনাকে আনফলো করতে পারে। একই বোর্ড থেকে সব পিন একবারেই শেয়ার করবে না, এতে ফলোয়ারদের ফিডস কেবল আপনার পিন দিয়েই ভরে যাবে, যা বিরক্তির কারন হতে পারে। তবে ভিন্ন বোর্ড থেকে ভিন্ন ভিন্ন পিন শেয়ার করলে সেটা মোটামূটি মেনে নেয়া যায়।

ফলোয়ার হারানোর একটি অন্যতম কারন হল বোর্ডে অপ্রাসঙ্গিক পিন বা পোস্ট যুক্ত করা। এটা মারাত্মক একটি ভুল।

সুতরাং আমরা বুঝতে পারলাম যে পিন্টারেস্ট কেবলমাত্র ইমেজ এর জন্যেই জনপ্রিয় না, এর আসল আকর্ষণ হল খুব সহজে এর মাধ্যমে আমরা আমাদের টার্গেটেড ইউজারদের কাছে পৌঁছুতে পারি। আর এই কারনেই দিন দিন এটি এতো জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।

ধন্যবাদ সবাইকে।

Source

Leave a Reply