প্রোগ্রামিং সি শার্প বাংলা টিউটোরিয়াল পর্ব ০৬ – সি শার্প বেসিক সিনট্যাক্স

সি শার্প হল একটি  অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং ল্যাঙ্গুয়েজ । অবজেক্ট ওরিয়েন্টেড প্রোগ্রামিং এর পদ্ধতি অনুযায়ী একটি প্রোগ্রামের অনেকগুলো অবজেক্ট থাকে, যেগুলো বিভিন্ন প্রয়োজনে একে অপরের সাথে যোগাযোগ করতে পারে । যে সকল অবজেক্ট কাজ সম্পাদন করে সেই অবজেক্ট গুলোকে মেথড বলা হয় ।

প্রোগ্রামিং সি শার্প বাংলা টিউটোরিয়াল পর্ব ০৬ – সি শার্প বেসিক সিনট্যাক্স

এখন একটা উদাহারনের সাহায্যে আমরা সি শার্পের বেসিক সিনট্যাক্স বুঝার চেষ্টা করব

using System;
namespace RectangleApplication
{
class Rectangle
{
double length;
double width;
public void Acceptdetails()
{
length = 4.5;
width = 3.5;
}

              public double GetArea()
{
return length * width;
}

             public void Display()
{
Console.WriteLine(“Length: {0}“, length);
Console.WriteLine(“Width: {0}“, width);
Console.WriteLine(“Area: {0}“, GetArea());
}
}

        class ExecuteRectangle
{
static void Main(string[] args)
{
Rectangle aRectangle = new Rectangle();
aRectangle.Acceptdetails();
aRectangle.Display();
Console.ReadLine();
}
}
}

উপরের প্রোগ্রামটিকে কম্পাইল এবং এক্সিকিউট করলে নিচের ফলাফল পাওয়া যায় ।

প্রোগ্রামিং সি শার্প বাংলা টিউটোরিয়াল পর্ব ০৬ – সি শার্প বেসিক সিনট্যাক্স

সি শার্প কমেন্টসঃ

প্রোগ্রামারের বুঝার সুবিধার জন্য অথবা মনে রাখার জন্য প্রোগ্রামের ভিতরের কোন কিছু লিখার প্রয়োজন হলে কমেন্টস ব্যবহার করা হয় । কম্পাইলার কমেন্টস এন্ট্রি গুলি উপেক্ষা করে অথবা রিড করেনা । একের অধিক লাইন কমেন্টস করার জন্য /* প্রতিক দিয়ে শুরু এবং */ প্রতিক দিয়ে শেষ করতে হয় , এবং শুধু মাত্র একটি লাইন কমেন্টস করার জন্য // প্রতিকটি লাইনের আগে ব্যবহার করতে হয় ।

মেম্বার ভেরিয়েবলঃ

ভেরিয়েবল হল একধরনের বিশেষ ধরনের বিশিষ্ট, যা তথ্য সংরক্ষণের জন্য ব্যবহৃত হয় । উপরের প্রোগ্রামে length and width দুইটা মেম্বার ভেরিয়েবল ।

মেম্বার ফাংশনঃ

ফাংশন হল এক বা একাধিক স্টেটমেন্টের বা বিবৃতির সংকলন, যা একটি নির্দিষ্ট কাজ সম্পন্ন করে । কোন মেম্বার ফাংশন ডিক্লেয়ার বা ঘোষণা করতে হলে অবশ্যই কোন ক্লাস এর ভিতরে ডিক্লেয়ার বা ঘোষণা করতে হবে ।  উপরের প্রোগ্রামে Rectangle ক্লাসের ভিতরে AcceptDetailsGetArea and Display  নামের তিনটা মেম্বার ফাংশন রয়েছে ।

আইডেন্টিফায়ারঃ

আইডেন্টিফায়ার হল ক্লাস, ভেরিয়েবল, ফাংশন অথবা যেকোন ধরনের নাম যেগুলো ইউজার বা ব্যবহারকারী নির্ধারণ করে থাকে । আইডেন্টিফায়ার লিখার জন্য কিছু নিয়ম রয়েছে, এ গুলো নিচে দেওয়া হলঃ

  • আইডেন্টিফায়ারের নামকরন অবশ্যই  লেটারস, ডিজিটস (0-9), আন্ডারস্কোর ( _ ) দিয়ে করতে হবে ।  আইডেন্টিফায়ারের প্রথম অক্ষর কখনোই ডিজিট (0-9) হতে পারবে না ।
  • আইডেন্টিফায়ারের নামে কখনোই কিছু কিছু (? - + ! @ # % ^ & * ( ) [ ] { } . ; : " ' / এবং \) অক্ষর গুলো ব্যবহার করা যাবে না । শুধু মাত্র আন্ডারস্কোর ( _ ) ব্যবহার করা যাবে ।
  • আইডেন্টিফায়ারকে কখনোই সি শার্প এর কীওয়ার্ড হিসাবে ব্যাবহার করা যায় না ।

সি শার্প কীওয়ার্ড সমূহঃ

সি শার্প কীওয়ার্ড হল সি শার্প কম্পাইলার পূর্বনির্ধারিত সংরক্ষিত শব্দ । এই কীওয়ার্ড গুলো  আইডেন্টিফায়ার হিসাবে ব্যবহার করা যায় না, কিন্তু আপনারা যদি কীওয়ার্ড গুলো আইডেন্টিফায়ার হিসেবে ব্যবহার করতে চান, তাহলে কিওয়ার্ডের আগে @ যোগ করে ব্যবহার করতে পারেন ।যেমনঃ আপনারা আইডেন্টিফায়ার হিসাবে class ব্যবহার করতে পারবেননা, কারন class একটি সি শার্প কীওয়ার্ড, কিন্তু class এর আগে @ যোগ করে আপনারা ব্যবহার করতে পারেন (@+class = @class)।

কিছু সি শার্প কিওয়ার্ডের ব্যবহার নিচে দেখান হল

সি শার্প প্রোগ্রামের প্রথম স্টেটমেন্টই হল using । এটা হল একধরনের কীওয়ার্ড  যা কোন নেমস্পেস কে প্রোগ্রামের অন্তর্ভুক্ত করে । সাধারনত একটি প্রগ্রামে অনেক গুলো using স্টেটমেন্ট থাকতে পারে। namespace কীওয়ার্ডটি কোন নেমস্পেস ডিক্লেয়ার করার জন্য ব্যবহার করা হয় ।  class কীওয়ার্ডটি কোন ক্লাস ডিক্লেয়ার করার জন্য ব্যবহার করা হয় ।

এইগুলো ছাড়াও আরও অনেক  সি শার্প কীওয়ার্ড রয়েছে এ গুলোকে রিজার্ভড কীওয়ার্ড বলা হয় ।

কোডের বিভিন্ন ধরন অনুযায়ী কিছু আইডেন্টিফায়ারের কিছু বিশেষ অর্থ রয়েছে । এই ধরনের কীওয়ার্ডকে কনটেক্সচুয়াল কীওয়ার্ড  বলা হয় । যেমনঃ get, set হল কনটেক্সচুয়াল কীওয়ার্ড ।

নিচে সি শার্প কীওয়ার্ডের রিজার্ভড কীওয়ার্ড এবং কনটেক্সচুয়াল কীওয়ার্ডের তালিকা দেওয়া হল ।

প্রোগ্রামিং সি শার্প বাংলা টিউটোরিয়াল পর্ব ০৬ – সি শার্প বেসিক সিনট্যাক্সপ্রোগ্রামিং সি শার্প বাংলা টিউটোরিয়াল পর্ব ০৬ – সি শার্প বেসিক সিনট্যাক্স

 

Leave a Reply